মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩০ মার্চ ২০২১

১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০১তম জন্মবার্ষিকী

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান (স্পারসো)-তে সকাল ১০:৩০ টা থেকে দুপুর ০১.০০ টা পর্যন্ত একটি আলোচনা সভা, বিশেষ মোনাজাত ও অন্যান্য কর্মসূচি পালন করা হয়। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে এবং সকাল ১০:৩০ টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করার মধ্যে দিয়ে স্পারসো চেয়ারম্যান জনাব মিজানুর রহমান (সরকারের অতিরিক্ত সচিব) কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধুর জীবন, দর্শন ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের উপর নির্মিত “চিরঞ্জিব বঙ্গবন্ধু” ডকুমেন্টরিটি প্রদর্শন করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর গুরুত্ব ও তাৎপর্যের উপর মূল আলোচক ছিলেন সদস্য (প্রযুক্তি-১) জনাব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান (সরকারের যুগ্ম-সচিব)। তিনি বঙ্গবন্ধুর শৈশব থেকে শুরু করে স্বাধীন বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর অবদানের বিস্তারিত রূপরেখা সবার সামনে তুরে ধরেন। এছাড়াও, স্পারসো’র প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ মাহমুদুর রহমান ও  সদস্য (প্রয়োগ) জনাব মোঃ জাফর উল্লাহ খান (সরকারের যুগ্ম-সচিব) বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, কূটনৈতিক বিচক্ষণতা এবং সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে বঙ্গবন্ধুর অবদান নিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন। স্পারসোর চেয়ারম্যান ও আলোচনা সভার সভাপতি জনাব মিজানুর রহমান বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব ও মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লক্ষ শহীদদের গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক চিন্তা ভাবনা ও মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতার সময়ের পরিক্রমায় উত্তরণ নিয়ে দূরদর্শী ভাবনাসমূহ সবার সামনে তুলে ধরেন। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে সরকার ঘোষিত বিভিন্ন অনুষ্ঠান উদ্‌যাপনের মাধ্যমে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, চেতনা বিকশিত করার আহবান জানান তিনি। এছাড়াও, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার জন্য সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা গ্রহণের আহবান জানান। আলোচনা সভায় স্পারসোতে কর্মরত কর্মকর্তা/কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয় এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যবৃন্দের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও বাংলাদেশ এবং স্পারসোর সমৃদ্ধির লক্ষ্যে বিশেষ মোনাজাত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।

 

১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০১তম জন্মবার্ষিকী ফটো গ্যালারী 


Share with :

Facebook Facebook